Loading...
The Financial Express

মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ তানজিয়া জামান মিথিলার স্বপ্নভঙ্গ

| Updated: April 20, 2021 21:23:22


মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ তানজিয়া জামান মিথিলার স্বপ্নভঙ্গ

মিস ইউনিভার্স হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মডেল তানজিয়া জামান মিথিলার যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে প্রতিযোগিতা থেকে তার নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ।  খবর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর।

দেশে চলমান লকডাউনে মিথিলার প্রস্তুতির ঘাটতি থাকায় ও যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা জটিলতার কারণে সার্বিক দিক বিবেচনা করে বৈশ্বিক এ আসর থেকে মিথিলার নাম প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে বলে মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের পরিচালক শফিকুল ইসলাম জানান।

শফিকুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, মিস ইউনিভার্সের এবারের মূল আসরে বাংলাদেশ থেকে কোনও প্রতিযোগী অংশ নিচ্ছে না।

মিথিলার একটি ভিডিওচিত্র ও বয়স নিয়ে বিতর্কের মধ্যেই গত ৯ এপ্রিল মিস ইউনিভার্সের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের প্রতিযোগী হিসেবে তার নাম যুক্ত করেছে মিস ইউনিভার্স কর্তৃপক্ষ; প্রতিযোগিতায় জয়ী হতে ভোটও চেয়েছিলেন মিথিলা।

শেষ মূহুর্তে প্রস্তুতির ঘাটতি ও ভিসা জটিলতার কথা তুলে সোমবার প্রতিযোগিতা থেকে মিথিলার নাম প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে বলে জানান শফিকুল; ইতোমধ্যে মিস ইউনিভার্সের ওয়েবসাইট থেকে মিথিলার নামও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

মিথিলা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “অনেক খারাপ লাগছে। যেতে পারলে অবশ্যই ভালো লাগত। এটাকে ব্যাড লাকও বলতে পারেন। মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের টাইটেলটা তো আমারই। মূল আয়োজনে অংশ নিতে না পারলেও আমি দেশের জন্য কাজ করব।”

প্রায় দশ হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বিজয়ী হয়েছেন মাগুরার মেয়ে মিথিলা; গত ৩ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে মাথায় বিজয়ীর মুকুট উঠেছে।

মিস ইউনিভার্সের ৬৯ আসর আগামী ১৬ মে বসছে যুক্তরাষ্ট্রে; প্রতিযোগীদের ৫ মে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ শীর্ষক একটি ভিডিওচিত্র নির্মাণ করার কথা ছিল বাংলাদেশি আয়োজকদের; বাংলাদেশে চলমান লকডাউনের কারণে সেটা সম্ভবপর হয়নি বলে জানান মিথিলা।

তিনি বলেন, “লকডাউনে আমরা বাংলাদেশের কোথাও যেতে পারিনি। ভিডিওটা বানাতে সিলেট, সুন্দরবন, রাঙামাটি যাওয়া দরকার ছিল কিন্তু সেটা সম্ভবপর হয়নি। পাশাপাশি আমার ব্যক্তিগত কিছু ভিডিও বানিয়ে মিস ইউনিভার্সে জমা দিতে হবে। এগুলো ছাড়া গেলে টপ টোয়েন্টিতেই আসতে পারবে না।”

“প্যান্ডেমিকের মধ্যে আমার ভ্যাকসিনও নেওয়া হয়নি। ভ্যাকসিন ছাড়া আমেরিকাতে ঢুকতে দেবে না। পাশাপাশি ভিসার জটিলতাও আছে। সবকিছু মিলিয়ে যাওয়া হচ্ছে না।”

এতো আয়োজনের পর মিথিলা যুক্তরাষ্ট্রে যেতে না পারায় মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ আর্থিকভাবে লোকসানের মুখে পড়লেও তা মেনে নিচ্ছেন বলে জানান শফিকুল ইসলাম।

“আমরা ভেবেছিলাম, লকডাউনে সরকারি অফিস খোলা থাকলেও বিশেষ অনুমতি নিয়ে আমাদের কাজগুলো করতে পারব কিন্তু এখন তো সরকারি অফিসই বন্ধ। লকডাউন এতোটা হার্ড হবে সেটা ভাবতেও পারি নাই। এত বড় আয়োজন করেও এ বছর মূল আসরে অংশগ্রহণ করতে পারছি না। এখন লোকসানটা মেনে নিতে হবে “

এর আগে পুরুষদের শৌচাগারে গোপনে ভিডিও ধারণ করে ফেইসবুকেও প্রকাশ করায় ও বয়স নিয়ে মিথিলাকে নিয়ে বিতর্ক হয়েছিল। তার নাম প্রত্যাহারের পেছনে সেগুলো কোনও ভূমিকা আছে কিনা?

শফিকুল বলেন, “এটার সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নাই। কারণ এটার সঙ্গে সম্পর্ক থাকলে ওরা ভোটিং প্রসেসই চালু করত না। আমি মেইল নাম প্রত্যাহারের পর তারা ভোটিংটা অফ করেছে।”

প্রস্তুতি ছাড়াই এমন বৈশ্বিক আয়োজনে গিয়ে বাজে পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার শঙ্কা থেকেই মিথিলার নাম প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে বলে জানালেন তিনি।

মডেল হিসেবে পরিচিত মিথিলা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়ার আগে ‘রোহিঙ্গা’ নামে বলিউডের একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে এসেছেন।

 

 

Share if you like

Filter By Topic

-->