Loading...
The Financial Express

২৮ বছরের অপেক্ষা ঘুচবে আর্জেন্টিনার?

| Updated: June 12, 2021 10:25:51


২৮ বছরের অপেক্ষা ঘুচবে আর্জেন্টিনার?

একটি করে টুর্নামেন্ট আসে আর আশায় বুক বাঁধে আর্জেন্টাইনরা-এই বুঝি ফুরাবে অপেক্ষা। কিন্তু একটা শিরোপার আক্ষেপ আর ঘোচে না। সময়ের পরিক্রমায় শুরু হতে যাচ্ছে আরও একটি কোপা আমেরিকা আসর। দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের সামনে আরেকটি সুযোগ। এবার কাটবে তাদের ২৮ বছরের শিরোপা খরা?

কলম্বিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে এবার কোপা আমেরিকা হওয়ার কথা ছিল আর্জেন্টিনায়। কিন্তু দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় শেষ মুহূর্তে সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় আসর। নানা বাধা পেরিয়ে আগামী রোববার থেকে টুর্নামেন্টটি শুরু হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলে। ভেন্যু বদল হওয়ায় লিওনেল মেসিদের জন্য কাজটা হবে তাই আরও কঠিন। খবর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের।

আর্জেন্টিনা সবশেষ কোপা আমেরিকা জিতেছিল ১৯৯৩ সালে, যেবার মাঝমাঠে রাজত্ব করেছিলেন দিয়েগো মারাদোনা, গোলমুখে গাব্রিয়েল বাতিস্তুতা। ফাইনালে বাতিস্তুতার জোড়া গোলেই মেক্সিকোকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করেছিল দলটি।

এরপর আর্জেন্টিনা দক্ষিণ আমেরিকার সেরা প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে উঠেছে আরও চারবার, একবার বিশ্বকাপ ফাইনালে। কিন্তু প্রতিবারই তাদের ফিরতে হয়েছে খালি হাতে।

ওই পাঁচ ফাইনালের চারটিতেই দলে ছিলেন মেসি। বার্সেলোনার হয়ে তার সাফল্যের ভাণ্ডার অনেক সমৃদ্ধ হলেও জাতীয় দলের হয়ে শিরোপা এখনও অধরাই রয়ে গেছে। আগামী ২৪ জুন ৩৪ বছর পূর্ণ করতে যাওয়া ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলারের শেষ যে সম্ভাবনাগুলো আছে, এর একটি এবারের কোপা আমেরিকা।

গত সপ্তাহে মেসি নিজেও বলেছেন শিরোপা জয়ের স্বপ্নের কথা, “যে টুর্নামেন্টই হোক না কেন, আমরা সবসময় জাতীয় দলের হয়ে কিছু জিততে চাই। সত্যি বলতে, তরুণরা খুব উৎসাহী এবং বয়স্করা সম্ভবত আরও বেশি।”

খেলা ব্রাজিলে হওয়ায় আর্জেন্টিনার জন্য কাজটা যেমন হয়ে উঠেছে কঠিন, আবার বাড়তি অনুপ্রেরণাও পেতে পারে তারা। গত আসরে সেমি-ফাইনালে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল আর্জেন্টিনা। যেখানে রেফারিং নিয়ে হয়েছিল বিতর্ক।

এবার নিশ্চয় প্রতিশোধ নিতে চাইবে তারা। তা না হলেও অন্তত তাদের ইতিহাসে সাফল্যের নতুন অধ্যায় রচনার সুযোগ নিতে চাইবে।

দুই গ্রুপের সবচেয়ে কঠিনটিতে পড়েছে আর্জেন্টিনা। যেখানে তাদের সঙ্গী বলিভিয়া, চিলি, প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়ে। তবে পাঁচ দলের চারটিই যাবে কোয়ার্টার-ফাইনালে।

আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি মনে করিয়ে দিলেন, খেলায় নানা বিতর্ক থাকবেই। দিন শেষে জয়ীদেরই কেবল সবাই মনে রাখে।

"দিন শেষে, কার প্রাপ্য ছিল সেটা বিবেচনা করা হয় না, জয়ীদেরই শুধু স্বীকৃতি দেওয়া হয়...আমরা প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলোর একটি এবং আমরা শেষ অবধি লড়াই করব।”

তরুণ আর অভিজ্ঞদের মিশেলে দলকে গড়ে তুলেছেন স্কালোনি। ক্লাবের হয়ে দারুণ মৌসুম কাটিয়ে এসেছেন পিএসজির আনহেল দি মারিয়া, ভিয়ারিয়ালের হুয়ান ফয়েথ, ইন্টার মিলানের লাউতারো মার্তিনেসের মতো খেলোয়াড়রা।

২০২২ কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এখন পর্যন্ত ছয় ম্যাচের সবকটিতে অপরাজিত তারা। সমান তিনটি করে জয় ও ড্রয়ে তালিকায় আছে দুই নম্বরে।

সব মিলিয়ে তাদের অপরাজেয় পথচলা তো আরও লম্বা। সবশেষ ২০১৯ সালের জুলাইয়ে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে হেরেছে আর্জেন্টিনা। প্রায় দুই বছর ও টানা ১৩ ম্যাচে তাদের হারাতে পারেননি কেউ। তবে, বাছাইয়ে শেষ দুই ম্যাচে চিলি ও কলম্বিয়ার বিপক্ষে এগিয়ে থেকেও পয়েন্ট হারানোর হতাশাও আছে। শক্তির বিচারে অবশ্য ঘুরে দাঁড়ানোর সামর্থ্য যথেষ্টই আছে দলটির।

সব ছাপিয়ে সবার নজর থাকবে মেসির দিকেই। জাতীয় দলের হয়ে কোনো শিরোপা জিততে না পারলে হয়তো একটি প্রশ্নবোধক চিহ্ন রয়েই যাবে তার বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে।

Share if you like

Filter By Topic